1. aftabguk@gmail.com : aftab :
  2. ashik@ajkerjanagan.net : Ashikur Rahman : Ashikur Rahman
  3. chairman@rbsoftbd.com : belal :
  4. ceo@solarzonebd.com : Belal Hossain : Belal Hossain
×
     

এখন সময় সন্ধ্যা ৬:০২ আজ বৃহস্পতিবার, ১২ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২৬শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ২৪শে শাওয়াল, ১৪৪৩ হিজরি




জেলা পরিষদ চেয়ারম্যানের মেয়াদ শেষের পরদিনই ৩০ লাখ টাকার মাছ বিক্রি করলেন প্রকৌশলী!

  • সংবাদ সময় : শনিবার, ৭ মে, ২০২২
  • ১৬৬ বার দেখা হয়েছে

প্রতিনিধি গাইবান্ধা
গাইবান্ধা ডাকবাংলোয় জেলা পরিষদের নিজস্ব পুকুর থেকে অবৈধভাবে ৫ লাখ টাকার মাছ তুলে তা বিক্রির অভিযোগ ওঠেছে উপ-সহকারী প্রকৌশলী সিরাজুল ইসলামের বিরুদ্ধে। এছাড়াও তিনি বিভিন্ন সড়কের জেলা পরিষদের মালিকানাধীন প্রায় ৩০ লাখ টাকার গাছ বিক্রি করেছেন টে-ার ছাড়াই। অবশ্য তিনি এসব অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।
অভিযোগে জানা গেছে, মেয়াদ শেষ হলে গাইবান্ধা জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আতাউর রহমান ১৭ এপ্রিল চলে যান। এর পরেরদিন ১৮ এপ্রিল ডাকবাংলোর পুকুর থেকে অবৈধভাবে মাছ তোলেন উপ-সহকারী প্রকৌশলী সিরাজুল ইসলাম। পরে তিনি উত্তোলনকৃত মাছ ৫ লাখ টাকায় বিক্রি করে দেন। অথচ পুকুর থেকে মাছ তুলতে গেলে কর্তৃপক্ষের অনুমোদন নেওয়ার নিয়ম। এছাড়াও উপ-সহকারী প্রকৌশলী সিরাজুল ইসলাম টে-ার ছাড়াই জেলা পরিষদের মালিকানাধীন প্রায় ৩০ লাখ টাকার গাছ বিক্রি করে দিয়েছেন, যার অর্থ পরিষদের তহবিলে জমা করেননি।
এসব অভিযোগের বিষয়ে জানতে উপ-সহকারী প্রকৌশলী সিরাজুল ইসলামের কাছে ফোন করলে তিনি জানান, সব মিথ্যা অভিযোগ। ওইদিন পুকুর থেকে সামান্য কিছু মাছ ধরা হয়েছিল, যা অফিসের স্টাফদের মাঝে বিতরণ করা হয়েছে। গাছ কাটার বিষয়ে তিনি বলেন, এটাও সম্পূর্ণ মিথ্যা অভিযোগ। তিনি অভিযোগ করে বলেন, চেয়ারম্যানের (প্রকাশক) চাহিদা মেটাতে পারছি না বলে আমার মিথ্যা অভিযোগ করা হচ্ছে।
এদিকে, গাইবান্ধা জেলা পরিষদের ইজারাকৃত ৫ টি খেয়াঘাটের আদায় করা টাকা সংশ্লিষ্ট হিসাবে জমা না করা এবং তার গাফিলতি ও দায়িত্বহীনতার কারণে জেলা পরিষদের আর্থিক ক্ষতির জন্য উপ-সহকারী প্রকৌশলী সিরাজুল ইসলামকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয়া হয়। ২০২১ সালের ৬ মে স্বাক্ষরিত এক পত্রে প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আব্দুর রউফ তালুকদার এই নোটিশ দেন। এ বিষয়ে জানতে প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তাকে ফোন করা হলেও তিনি তা রিসিভ করেননি। তবে সিরাজুল ইসলাম মোবাইল ফোনে বলেন, এসব তো মিটে গেছে।




সংবাদটি শেয়ার করুন

এই ধরনের আরো সংবাদ