1. aftabguk@gmail.com : aftab :
  2. ashik@ajkerjanagan.net : Ashikur Rahman : Ashikur Rahman
  3. chairman@rbsoftbd.com : belal :
  4. ceo@solarzonebd.com : Belal Hossain : Belal Hossain
×
     

এখন সময় দুপুর ১:৩৭ আজ বৃহস্পতিবার, ১৩ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৭শে জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ২২শে জমাদিউস সানি, ১৪৪৩ হিজরি




গাইবান্ধায় জোড়া খুনের রহস্য উৎঘাটন: মায়ের অবৈধ সম্পর্কের কারনেই হত্যাকান্ড

  • সংবাদ সময় : রবিবার, ১৫ আগস্ট, ২০২১
  • ৩৯৮ বার দেখা হয়েছে

আফতাব হোসেন:
গাইবান্ধার পাঠানপাড়ায় একই গাছে দু’বন্ধুর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধারের ঘটনায় চাঞ্চল্যকর তথ্য পেয়েছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। মায়ের অবৈধ সম্পর্ক জানা জানি হওয়ায় খুন করা করা হয় সুমন কান্তি দাসকে। আর নিহত সুমন কান্তি দাস এর বন্ধু মৃনাল কান্তি দাসের জীবন গেল বন্ধুর সাথে থাকার জন্য।  রবিবার গাইবান্ধার পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) গণমাধ্যম কর্মীদের কাছে এই তথ্য তুলে ধরেন। চাঞ্চল্যকর জোড়া খুনের ঘটনায় পিবিআই ৪দিনের মধ্যে হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত অন্যতম আসামী প্রদীপ কুমার দাসকে গ্রেপ্তার করে।
পিবিআই এর পুলিশ সুপার এ.আরএম. আলিফ জানান, মামলাটি পিবিআই এর আসার একদিনের মধ্যে হত্যার প্রকৃত রহস্য উৎঘাটন করে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আসামী হত্যাকান্ডের পরিকল্পনা ও দ্বায় স্বীকার করে। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ইলিয়াস আলী জানান, সুমনের মায়ের সাথে নিতাই চন্দ্র দাসের অবৈধ সম্পর্ক এলাকায় জানাজানি হলে ক্ষিপ্ত হয়ে পড়ে সে। এনিয়ে সুমন চন্দ্র দাসও নিতাই চন্দ্র দাসের মধ্যে কথাকাটাকাটিও হয়। এই ক্ষোভ থেকেই নিতাই খুনের পরিকল্পনা করে। সেই অনুযায়ী গত ১২ আগষ্ট, ২০২১ তারিখ রাত আনুমানিক ১টায় পলাতক আসামী নিতাই চন্দ্র দাস এর পূর্ব পরিকল্পণায় গ্রেফতারকৃত আসামী প্রদীপ চন্দ্র দাস এর সহযোগিতায় সুমন ও মৃনাল কান্তি দাকে  মাদক দ্রব্য সেবনের উদ্দেশ্যে মামলার ঘটনাস্থল নির্জন স্থানে নিয়ে আসে। সেখানে  প্রথমে সুমনকে এবং কিছুক্ষণ পরেই মৃনালকে গলায় রশি লাগিয়ে হত্যা করে। আর এই হত্যা মিশনে  অংশ নেয় ৫ থেকে ৬জন।  হত্যা নিশ্চিত করে এটি ভিন্নখাতে নিতে তাদের গলায় ফাঁসি লাগিয়ে একটি শিশু কাঠ গাছের কান্ডের সাথে ঝঁলিয়ে রাখে। এজন্য প্রথমে সাধারণ মানুষ ভাবছিলেন এটি দু’বন্ধুর আত্মহত্যা। প্রদীপকে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে আদালতে প্রেরণ করা হয়। অন্য আসামীদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা করছে পিবিআই।




সংবাদটি শেয়ার করুন

এই ধরনের আরো সংবাদ