1. aftabguk@gmail.com : aftab :
  2. ashik@ajkerjanagan.net : Ashikur Rahman : Ashikur Rahman
  3. chairman@rbsoftbd.com : belal :
  4. ceo@solarzonebd.com : Belal Hossain : Belal Hossain
×
     

এখন সময় সন্ধ্যা ৭:১৯ আজ সোমবার, ১২ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৭শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১৯শে সফর, ১৪৪৩ হিজরি




করোনার ভীতি নেই গাইবান্ধার ঈদ বিনোদন ষ্পটগুলোতে

  • সংবাদ সময় : শুক্রবার, ২৩ জুলাই, ২০২১
  • ৯০ বার দেখা হয়েছে

আফতাব হোসেন:
করোনার ভীতি নেই ঈদ উৎসবে গাইবান্ধার শহর ও গ্রামাঞ্চলের পার্ক, নদীর তীর, লেক, ব্রীজ ও ছোট ছোট বিনোদন ষ্পটগুলোতে। বিভিন্ন স্থানের মানুষজনের একাকার হয়ে চলাফেরা করছে। এসব স্পটে বসেছে নানা ধরণের খাবার রেষ্টুরেন্ট। স্বাস্থ্যবিধি উপেক্ষিত আর মানার ক্ষেত্রে নেই কোন তদারকি।
ঈদ উল আযহায় গাইবান্ধা জেলার বালাসিঘাট, ঘাঘট লেক, পৌরপার্ক, সাঘাটার থানা সংলগ্ন ওয়াপদা বাঁধ, মেলানদহ ব্রীজ, সাদুল্যাপুরের ঘাঘট পাড়, সুন্দরগঞ্জের আলীবাবা থীম পার্ক, গোবিন্দগঞ্জের বড়দহ সেতুসসহ আরো কয়েকটি বিনোদন স্পটে ঈদ উৎসব পালনে শতশত মানুষের উপস্থিতি ও সমাগম বেড়েছে। মেলার মতো এসব এলাকায় বেসেছ নানা ধরনের খাবার ও খেলনার দোকান। এসব এলাকায় বেশিরভাগ মানুষের মুখে দেখা যায়নি মাস্ক।
সাঘাটার জুমারবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রোস্তম আলী জানান, মেলানদহ ব্রীজে আরো কয়েকদিন মানুষের সমাগম হবে। সোনাতলা, শিবগঞ্জ,বগুড়া, গোবিন্দগঞ্জ ও সাঘাটা উপজেলার শতশত শিশু, কিশোর-কিশোরীসহ সববয়সী মানুষ এখানে আসে। তবে তিনি জানান, এগুলো প্রশাসনের নিয়ন্ত্রণ করা দরকার।
গাইবান্ধার বালাসীঘাটের ঈদের দিন থেকে পরবর্তী একসপ্তাহ বিভিন্ন স্থান থেকে লোকজন এসে এখানে সময় পার করেন বলে জানান কঞ্চিপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য আব্দুল হামিদ।
সাঘাটা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) বেলাল হোসেন জানান, বিভিন্ন এলাকা থেকে অপরিচিত মানুষজন ঈদে সময় পার করতে এসব স্পটে আসছে, এইসময়ে তাদের নিয়ন্ত্রণ করা খুব মুশকিল। এসব মানুষজনকে মাস্ক পরার নির্দেশনা দেয়া হচ্ছে। তবে এই নির্দেশনা না মানলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার হবে বলে জানান তিনি।
গাইবান্ধার সিভিল সার্জন ডা. আখতারুজ্জামান জানান, বিভিন্ন এলাকার মানুষজন গ্রামে ঈদ উৎসবে আসায় ঈদের পরবর্তী কয়েক দিন অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ সময়, এই সময়ে সংক্রমন বাড়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

 




সংবাদটি শেয়ার করুন

এই ধরনের আরো সংবাদ