1. aftabguk@gmail.com : aftab :
  2. ashik@ajkerjanagan.net : Ashikur Rahman : Ashikur Rahman
  3. chairman@rbsoftbd.com : belal :
  4. ceo@solarzonebd.com : Belal Hossain : Belal Hossain
×
     

এখন সময় বিকাল ৫:৩৬ আজ শুক্রবার, ৩১শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৪ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ৩০শে রমজান, ১৪৪২ হিজরি




পঞ্চগড়ে দুই ছেলেকে নিয়ে মাক্স বিতরণ করছে এক নারী

  • সংবাদ সময় : বৃহস্পতিবার, ২২ এপ্রিল, ২০২১
  • ৭৫ বার দেখা হয়েছে
 
উমর ফারুক পঞ্চগড় জেলা প্রতিনিধি :
মাস্ক পরার অভ্যেস, কোভিড মুক্ত বাংলাদেশ’, ‘অফিস কিংবা আদালতে, মাস্ক পরতে হবে সেবা পেতে’, ‘গণ সমাবেশ যেখানে, করোনায় আক্রান্ত হয় সেখানে’- এমন বেশ কিছু প্রতিপাদ্য নিয়ে পঞ্চগড়ে করোনা প্রতিরোধে মাস্ক পরিধান উদ্বুদ্ধকরণ কর্মসূচী পালন করেছে  শাপলা আক্তার  নামের এক নারী । তার দুটি সন্তান কে নিয়ে  এসময় তারা সাধারণ মানুষের মাঝে এবং বিভিন্ন দোকানে গিয়ে সচেতনতামূলক প্রচারণা ও মাস্ক বিতরণ করেন। করোনাভাইরাসের সংক্রমণে  দিন দিন বেড়েই চলেছে । তাই নিজের অর্থ দিয়ে   বিনা মূল্যে  মাস্ক বিতরণ করেছে  পঞ্চগড়ের বোদা উপজেলার ৫ নং  বড়শশী  ইউনিয়নের শাপলা আক্তার নামে এক নারী ।  বুধবার বিকেলে  দাড়িআমর বাজারে মাক্স বিতরণ করা হয় । এ সময় সাধারণ মানুষের সুরক্ষা নিশ্চিত করতে সচেতনতামূলক প্রচারও চালান  শাপলা আক্তার । ব্যস্ততম ওই এলাকায় যেসব পরিবহনের চালক, যাত্রী ও পথচারীদের মাস্ক পরা ছিল না, তাঁদের মাস্ক পরিয়ে দেন  নিজের হাতে । পরে  বিভিন্ন বাজার এলাকার বেশ কয়েকটি মার্কেট ঘুরে দোকানি, ক্রেতা ও বিক্রেতাদের মাস্ক উপহার দেন এবং করোনা নিয়ে সচেতনতামূলক প্রচার চালান। শাপলা আক্তার বলেন,  আমার স্বামী  মো: নুর ইসলাম ।  তিনি  বড়শশী  ইউনিয়নের  একজন সাবেক  চেয়ারম্যান ছিলেন ,  আমার স্বামী  মানুষের সেবা করতো  তার  কাছ থেকে শিখেছি মানুষ  সেবা কিভাবে করতে হয় ।মানুষের সেবা করা আল্লাহর রাসূলের ধর্ম । তাই  এই প্রত্যাশা নিয়ে  মানুষের সেবা করে যাচ্ছি । শুধু তাই নয় এলাকার ব্যাপক উন্নয়ন মূলক কাজের পাশাপাশি সাধারণ মানুষকে ব্যাপক সহযোগিতা করেন শাপলা  আক্তার ।  বিভিন্ন এলাকা ঘুরে সাধারণ মানুষের সাথে কথা বলে জানা গেছে, তিনি মানুষের বিপদে আপদে ব্যাপক সহযোগিতা সহ সব সময় সকলের পাশে থাকেন। যে কোন প্রয়োজনে তার কাছে গেলে কখনো নিরাশ হয়ে ফিরতে হয়নি কাউকে ।  এলাকাবাসীর কাছ থেকে জানা যায়,  মোছা:  শাপলা আক্তার  একজন সৎ সাহসী এবং সুন্দর মনের মানুষ । যার মধ্যে নেই কোন হিংসা সকলের সঙ্গে প্রথমেই  সালাম, ও আদাব  দিয়ে হাসিমুখে কথা বলাটা যেন তার ছোটবেলার স্বভাব ।  আমরা দেখেছি ছাত্রজীবন থেকে শুরু করে মানুষের সেবা করে আচ্ছে। রোদ বৃষ্টি ঝড়ের মধ্যে অসহায় মানুষের পাশে গিয়ে সেবা করেছিলেন । মহামারী করোনাভাইরাস এর সময় নিজের জীবনের মায়া ত্যাগ করে নিজের অর্থ দিয়ে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছিলেন ।  শাপলা আক্তার আরোও  বলেন, গরীব মানুষেরা বিশেষ করে এলাকাবাসী  আমাকে তাদের প্রকৃত বন্ধু মনে করেন ।  তাই নিজের অর্থ দিয়ে  এলাকাবাসীকে  আমি সহযোগিতা করি  ।  ওদের আনন্দ মানে আমার আনন্দ ।




সংবাদটি শেয়ার করুন

এই ধরনের আরো সংবাদ