1. aftabguk@gmail.com : aftab :
  2. ashik@ajkerjanagan.net : Ashikur Rahman : Ashikur Rahman
  3. chairman@rbsoftbd.com : belal :
  4. ceo@solarzonebd.com : Belal Hossain : Belal Hossain
×
     

এখন সময় রাত ৮:০৯ আজ সোমবার, ১২ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৭শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১৯শে সফর, ১৪৪৩ হিজরি




মান্দায় শীব নদী সংস্কারের অভাবে বিলীন হচ্ছে কৃষকের স্বপ্ন

  • সংবাদ সময় : মঙ্গলবার, ৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২১
  • ৯০ বার দেখা হয়েছে
ওয়াশিম রাজু, মান্দা (নওগাঁ) প্রতিনিধিঃ নওগাঁর মান্দায় শীব নদী সংস্কার ও খননের অভাবে বিলীন হচ্ছে কৃষকের স্বপ্ন। হাজারো কৃষকের স্বপ্ন ভেসে যাচ্ছে পানিতে। দীর্ঘদিন যাবত মরা শীব নদী সংস্কার ও খননের অভাবে উপজেলার বিল মান্দা, বিল মহেশপুর ও বাতাশপুর বিলে পানি জমে থাকায় প্রায় ২ হাজার বিধা জমিতে বোরো ধান রোপন করতে পারছেন না কৃষকেরা। আবার কিছু জমিতে ধান রোপন করলে উজানের ঢলে নেমে আসা পানিতে প্রায় ৫ শত থেকে ৭ শত বিঘা বোরো ধান তলিয়ে গেছে।
প্রতি বছর-ই উজানের ঢলে নেমে আসা পানি কৃষকের সোনালী স্বপ্ন কেড়ে নিচ্ছে। থই থই বিল ভরা পানিতে মাছ শিকার করছেন মৎস্যজীবীরা। সোনালী ফসল থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন এই বিলের কৃষকেরা। অনেকেই সোনালী ধান রোপনের স্বপ্ন দেখলেও পরিত্রান মিলছে না কৃষকদের। আবার সময় অতিক্রম করে দেরিতে বোরো ধান রোপন করায় আগাম বৃষ্টির পানিতে তলিয়ে যায় আধা পাকা ধান। এই বিলের কৃষকেরা দীর্ঘদিন থেকে মরা শীব নদী খননের স্বপ্ন দেখছেন। নদী খনন হলে হইতো মিলবে তাদের পরিত্রাণ। নদী খনন ও সংস্কারের অভাবে মিলছে না তাদের পরিত্রাণ। একদিকে উজানের ঢলের পানি অন্যদিকে উজানের ভাটি অংশের বাঁধ পানি বন্দি করে ফেলেছে বিল মান্দা, বিল মহেশপুর ও বাতাশপুর বিলের কৃষকদেরকে। রাজশাহী কামারপাড়ার ভাটি অংশে  শীব নদীর উপর বাঁধ দেওয়ায় এসব বিলে সারা বছরই পানি বন্দি হয়ে থাকে।
ফসল না হওয়ায় এসব বিলের কৃষকদের অভাব যেন নিত্য দিনের সঙ্গী। বছরে একটিমাত্র বোরো ফসল সেটিও তাদের ভাগ্যে জোটে না। অবসাদ ক্লান্তি ও হতাশা যেন তাদেরকে গ্রাস করেছে।
বিলের ভুক্তভোগী কৃষকরা জানান, এই শীব নদী সংস্কার ও খনন দীর্ঘ দিনের প্রত্যাশা কিন্তু আজও হয় নি খনন কাজ। আমরা অনেক বার  স্থানীয় সংসদ সদস্য ও জনপ্রতিনিধিদের দারস্থ হলেও কোন সমাধান মিলেনি। জনপ্রতিনিধিরা বারবার প্রতিশ্রুতি দিলেও আজও খনন ও সংস্কার কাজ শুরু হয় নি। খনন কাজ হলেই আমরা অর্থনৈতিকভাবে সচ্ছল হয়ে উঠবো। আমাদের দুঃখ-কষ্ট লাঘব হবে। ছেলে-মেয়েদের নিয়ে দু-মুঠো খেয়ে বেঁচে থাকতে পারবো।
শীব নদী খনন ও সংস্কার কাজ দ্রুত শুরু করার জন্য স্থানীয়রা সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নিকট আশু হস্তক্ষেপ কামনা করছেন।




সংবাদটি শেয়ার করুন

এই ধরনের আরো সংবাদ