1. aftabguk@gmail.com : aftab :
  2. ashik@ajkerjanagan.net : Ashikur Rahman : Ashikur Rahman
  3. chairman@rbsoftbd.com : belal :
  4. ceo@solarzonebd.com : Belal Hossain : Belal Hossain
×
     

এখন সময় সন্ধ্যা ৭:৫০ আজ বৃহস্পতিবার, ১লা শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১৬ই জুলাই, ২০২০ ইং, ২৫শে জিলক্বদ, ১৪৪১ হিজরী




গাইবান্ধা-বালাসী সড়কে হাটু পানি

  • সংবাদ সময় : রবিবার, ২৮ জুন, ২০২০
  • ৩৩৩ বার দেখা হয়েছে

আফতাব হোসনে॥ গাইবান্ধা জেলার উপর দিয়ে প্রবাহিত  ব্রহ্মপুত্র, তিস্তা ও ঘাঘট নদীর পানি বৃদ্ধি বেড়েই চলছে। এতে করে  জেলায়র সার্বিক  বন্যা পরিস্থিতি আরও অবনতি হয়েছে ।  এদিকে জেলার সাথে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ সড়ক গাইবান্ধা-বালাসী রোডের উপর প্রায় এক কিলোমিটার এলাকায় বন্যার পানি প্রবাহিত হচ্ছে। এতে করে জেলার সাথে পূর্বাঞ্চলের নৌ ও সড়ক যোগাযোগ যেকোন মুহুর্তে সম্পূর্ণভাবে  বিচ্ছিন্ন হওয়ার উপক্রম হয়েছে।

পানি উন্নয়ন বোর্ড সুত্র জানিয়েছে, গত ২৪ ঘন্টায় রোববার দুপুর ৩টা পর্যন্ত ব্রহ্মপুত্রের পানি বিপদসীমার ৫৯ সে.মি. ও ঘাঘট নদীর পানি বিপদসীমার ৩৫ সে.মি. উপর দিয়ে প্রবাহিত হয়।
জেলায় ৪টি উপজেলার সুন্দরগঞ্জের ৭টি ইউনিয়ন, গাইবান্ধা সদরের ৩টি, ফুলছড়ির ৬টি ও সাঘাটার ৩টি ইউনিয়ন বন্যা কবলিত হয়ে পড়ায় ঘরবাড়িতে পানি ওঠায় এ পর্যন্ত প্রায় ২০ হাজার লোক এখন পানিবন্দী হয়ে পড়েছে। বন্যা কবলিত এলাকাগুলোর রাস্তাঘাট ডুবে গেছে। কোথাও কোথাও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পানি উঠেছে।
বিভিন্ন সুত্র থেকে জানা গেছে, সুন্দরগঞ্জের তারাপুর, বেলকা, কঞ্চিপাড়া, হরিপুর, কাপাসিয়া, শ্রীপুর ও চন্ডিপুর, সদর উপজেলার কামারজানি, মোল্ল¬ারচর ও গিদারী, ফুলছড়ির এরেন্ডবাড়ি, ফজলুপুর, ফুলছড়ি, গজারিয়া, উড়িয়া ও উদাখালী এবং সাঘাটার ভরতখালী, ঘুড়িদহ ও হলদিয়া ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকায় পানি ঢুকে পড়েছে। বাড়িঘরে পানি ওঠায় ওইসব বন্যা কবলিত মানুষ গবাদিপশু নিয়ে বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ অথবা উঁচু স্থানে গিয়ে আশ্রয় নিচ্ছে।
এদিকে গাইবান্ধা জেলা প্রশাসকের পক্ষ থেকে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ে জানানো হয়েছে ৪টি উপজেলার ১৩টি ইউনিয়ন বন্যা কবলিত হয়ে পড়েছে। নদ-নদীর পানি দ্রুত বাড়ছে বলে প্রতিবেদনে উলল্লেখ করা হয়।

পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মোখলেছুর রহমান জানান, উজানের পানি ও বৃষ্টিপাতের ফলে পানি আরো ২-৩ দিন বাড়তে পারে।

 




সংবাদটি শেয়ার করুন

এই ধরনের আরো সংবাদ