1. aftabguk@gmail.com : aftab :
  2. ashik@ajkerjanagan.net : Ashikur Rahman : Ashikur Rahman
  3. chairman@rbsoftbd.com : belal :
  4. ceo@solarzonebd.com : Belal Hossain : Belal Hossain
×
     

এখন সময় রাত ৯:৪২ আজ শুক্রবার, ৩১শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৪ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১লা শাওয়াল, ১৪৪২ হিজরি




বৃহত্তর জাতীয় ঐক্য যেন ছাগল দিয়ে হালচাষ

  • সংবাদ সময় : সোমবার, ৮ অক্টোবর, ২০১৮
  • ১২৪ বার দেখা হয়েছে

ডেস্ক রিপোর্ট: হালচাষের কাজে এখন প্রযুক্তির ছোঁয়া লেগেছে। বাংলাদেশে অন্যান্য ক্ষেত্রের মত এই ক্ষেত্রেও বৈপ্লবিক পরিবর্তন চলে এসেছে। জ্বালানী তেলের স্বল্পমূল্য এবং কৃষকদের সচেতনতার কারণে এখন কৃষি জমিতে ট্রাক্টর ব্যবহার করা হয়। ১০ বছর আগেও অবশ্য বাংলাদেশে প্রচুর জমিতে গরু দিয়ে হালচাষ করানো হত। এখন অনেক কমে গেছে। নাই বললেই চলে। না থাকলেও কিছু কিছু প্রবাদ রয়ে গেছে। এর ভেতর একটি প্রবাদ হল, ছাগল দিয়ে হালচাষ করা। চাষ করতে গরু বা মহিষের মত আকারে দীর্ঘ প্রাণী প্রয়োজন। ছাগল এই কাজের জন্য উপযুক্ত না। লাঙ্গল বইবার মত নূন্যতম শক্তিও ছাগলের নাই। অতএব ছাগল দিয়ে হালচাষ বললে প্রায় অসম্ভব ব্যাপার কিছু বোঝায়।

বিএনপির সূত্র ধরে বাংলাদেশের সাম্প্রতিক রাজনীতিতে ছাগল দিয়ে হালচাষের প্রসঙ্গ চলে আসছে। দলটির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান ঢাকার পরিবর্তে লন্ডন থাকেন। তাদের চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া দুর্নীতির মামলায় কারাগারে বন্দী। এই দুইজনের বিভিন্ন শিশুতোষ রাজনৈতিক সিদ্ধান্তে টানা দশ বছরের মত বিএনপি ক্ষমতার বাইরে। ব্যক্তিস্বার্থে ক্রমাগত আন্দোলনের কারণে বিরোধী দলের যতটুকু জনপ্রিয়তা থাকার কথা, সেটা তাদের নেই। আন্তর্জাতিকভাবেও বিএনপি বন্ধুহীন। এই অবস্থায় বিএনপির হাই কমান্ড বৃহত্তর জাতীয় ঐক্য নামে ভিন্ন একটি রাজনৈতিক পাটাতন তৈরী করে তাতে দাড়াতে চাইছে। জাতীয় রাজনীতিতে বৃহত্তর জাতীয় ঐক্য নেতৃবৃন্দের যা পরিচিতি, গ্রহণযোগ্যতা এবং জনপ্রিয়তা, তাতে ছাগলের প্রসঙ্গ না চাইলেও চলে আসে। বিএনপির নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোট নির্বাচনকালীন তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবী সফল করতে পারেনি। তারা চাইছে বৃহত্তর জাতীয় ঐক্য তাদের হয়ে এই দাবী সফল করুক।

ড. কামাল হোসেন ছাড়া বৃহত্তর জাতীয় ঐক্যে থাকা কারো নামের সঙ্গেই জাতি তেমন পরিচিত নয়। এই যেমন, গণফোরামের নির্বাহী সভাপতি অ্যাডভোকেট সুব্রত চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা মহসিন মন্টু, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের সাধারণ সম্পাদক আবদুল মালেক রতন, বিকল্পধারা বাংলাদেশের ব্যারিস্টার ওমর আলী, জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার সদস্য সচিব আ ব ম মোস্তফা আমিন এবং নাগরিক ঐক্যের ডা. জাহিদুল ইসলাম। এই নামগুলো বাংলাদেশের জনসাধারণের কাছে খুবই অপরিচিত। জাতীয় এবং স্থানীয় রাজনীতিতে যারা প্রভাবশালী তাদের কেউ এখনও বৃহত্তর জাতীয় ঐক্যে যোগদান করেননি। কর্নেল অলি আহমদ (অব.) বীরবিক্রম তেমন একজন। তিনি বৃহত্তর জাতীয় ঐক্য সম্পর্কে বলেন ‘দোকানদারের সঙ্গে যারা পরাজিত হন, তারা কীভাবে জাতীয় ঐক্য গড়ে তুলবেন?’

কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী বীরউত্তম জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার মহানগর নাট্যমঞ্চের সমাবেশে যাননি। তিনি এই ঐক্য সম্পর্কে উ‌ৎসাহী নন। বাকি থাকলো বিকল্পধারা। বিকল্পধারার যুগ্ম মহাসচিব প্রজন্ম বাংলাদেশের চেয়ারম্যান মাহী বি চৌধুরী রবিবার এক অনুষ্ঠানে বলেন, ‘১৫১ আসন পাওয়ার পর বিএনপির চেহারা দেখেছি। ওই চেহারা আর দেখতে চাই না। ভয় দেখিয়ে কোনো ঐক্য করা যাবে না। মুখে বলবেন এক কথা, কাজে আরেক, তা হবে না। আমরা ভারসাম্যের রাজনীতি ও সরকার চাই। এককেন্দ্রিক সরকার আর নয়’।

সার্বিক পরিস্থিতি দেখে, শুনে, বুঝে ছাগল দিয়ে হালচাষ করার কথা মনে হওয়া স্বাভাবিক।




সংবাদটি শেয়ার করুন

এই ধরনের আরো সংবাদ