1. aftabguk@gmail.com : aftab :
  2. ashik@ajkerjanagan.net : Ashikur Rahman : Ashikur Rahman
  3. chairman@rbsoftbd.com : belal :
  4. ceo@solarzonebd.com : Belal Hossain : Belal Hossain
×
     

এখন সময় সকাল ৮:২৩ আজ বৃহস্পতিবার, ১৪ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৯শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১৭ই জিলহজ, ১৪৪২ হিজরি




সাঘাটার লালু হত্যা, পুলিশি জিজ্ঞাসাবাদের ভয়ে পুরুষ শুণ্য গ্রাম!

  • সংবাদ সময় : শনিবার, ২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮
  • ১১৮ বার দেখা হয়েছে

আবু তাহের, সাঘাটা প্রতিনিধি:
গাইবান্ধার সাঘাটা উপজেলার বাদিনার পাড়া গ্রামের জাফর আলী লালু (৬২) হত্যার ২৪ দিন অতিবাহিত হলেও কোন রহস্য বের করতে পারেনি পুলিশ। আসামী বিহীন অভিযোগ হত্যার ঘটনা নিয়ে এলাকায় পরস্পর বিরোধী বক্তব্য জনমনে নানা প্রশ্নের সৃষ্টি হয়েছে। অপর দিকে পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদ এড়াতে এলাকাটি পুরুষ শুণ্য হয়ে পড়েছে।
লালুর স্ত্রী শহিদা জানায়, প্রতিবেশী চায়না আক্তার ডায়নার সাথে দীর্ঘদিন থেকে পরকিয়া প্রেম ছিল, সেই প্রেমের জের ধরেই সে ও তার বিয়াই বাড়ীর লোকজন দ্বারা আমার স্বামীকে হত্যা করা হয়েছে বলে আমার ধারনা।
লালুর বড় পুত্র সৈয়দজ্জামান জানায়, আমি কাউকে দোষারোপ করছিনা। তবে আমার বাবাতো গাছের বেল পড়ে মরেনি। কেউনা কেউ তাকে হত্যা করে নদীতে উলঙ্গ করে রেখে গিয়েছে। আমি আমার বাবার হত্যাকারি বিচার ও ফাসি চাই। সে যেই হোকনা কেন।
প্রতিবেশি মোজাফ্ফর নামের জনৈক ব্যক্তি জানান, ডায়নার সাথে লালুর অবৈধ সম্পর্ক  ছিল, তাদের ঘটনার প্রতিবাদ করায় লালুর পুত্র সৈয়দজ্জামানকে আসামী করে মামলা করেছিল। সেটা গ্রামের সবাই জানে, শুধু লালু নয় আরো ২/৩ জন ডায়ানার বাড়ীতে অবাধে যাতায়াত করত। এছাড়াও ঘটনার রাতে ডায়না, ফেরদৌস ও লালুকে তাদের বাড়ির পাশের ভিটেতে কথা বলতে দেখেছি।
সন্দেহভাজন হত্যাকারী ও থানা পুলিশের হাতে আটক ডায়ানার পুত্র ফিরোজ জানায়, আমার মা বাবাকে মিথ্যাভাবে দোষারোপ করা হচ্ছে। লালু আমার সম্পর্কে জেঠা হয়। পাশাপাশি বাড়ি হওয়ায় তিনি আমাদের বাড়িতে আসলে লালুর স্ত্রী ও পুত্ররা নানান কুৎসিত ভাষায় গালাগালি পারতো। এমনকি আমাদের সামনেই লালুকে হত্যা করার হুমকি দিতো তার পরিবারের লোকজন। এছাড়া গত কুরবানির ঈদের আগে জুমারবাড়ি বাজারের মাই ওয়ান দোকান হতে আমরা একটা ফ্রিজ কিস্তিতে কিনে বাড়িতে আনলে তা নিয়ে লালুর স্ত্রী বলে তার স্বামী আমাদের ফ্রিজ কিনে দিয়েছে। এনিয়ে লালু ও তার পরিবারের সদস্যদের মাঝে কথাকাটাকাটি হয়। আমার ধারনা বিভিন্ন সন্দেহের কারনে তার পরিবারের লোকজন পুর্ব পরিকল্পিতভাবে হত্যা করে লালুর লাশ গুম করে নদীতে ফেলে রেখেছে।
মামলার তদন্ত কর্মকর্তা নয়ন সাহা জানান, হত্যার রহস্য উদঘাটনের জন্য ডায়নার ও তার স্বামীর কাছ থেকে মামলার অগ্রগতির ক্ষেত্রে কিছু গুরত্বপুর্ণ তথ্য পাওয়া গেছে। তদন্তের স্বার্থে তা বলা যাবেনা। তবে খুব শীঘ্রই হত্যা রহস্য উদঘাটন হবে। পুলিশ লালুর কথিত প্রেমিকা ডায়না ও তার স্বামী ফেরদৌসকে ঘটনার দিনেই গ্রেফতার করে পরদিন আদালতে পাঠানোর পর আবার তিন দিনের রিমান্ড নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে।
উল্লেখ্য, উপজেলার বাদিনার পাড়া গ্রামের জাফর আলী লালু (৬২) গত ২৯ আগষ্ট বিকালে বাড়ী থেকে বারকোনা বাজারের উদ্দেশ্যে গিয়ে আর ফিরে আসেনি । পরদিন সকাল ১১ ঘটিকার দিকে বাড়ীর অদুরে মরা বাঙ্গালী নদী থেকে ভাসমান অবস্থায় লালুর উলঙ্গ লাশ পাওয়া যায়। লালুর কন্যা পিয়ারা বেগমকে হত্যার বাদী করে মামলা করা হয়। যার মামলা নং ২০/১৭৮, তারিখ ৩১ আগষ্ট, ধারা ৩০২/২০১/৩৪ পেনাল কোড।




সংবাদটি শেয়ার করুন

এই ধরনের আরো সংবাদ