1. aftabguk@gmail.com : aftab :
  2. ashik@ajkerjanagan.net : Ashikur Rahman : Ashikur Rahman
  3. chairman@rbsoftbd.com : belal :
  4. ceo@solarzonebd.com : Belal Hossain : Belal Hossain
×
     

এখন সময় সকাল ৯:৩৬ আজ বুধবার, ১১ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৭শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১৯শে রবিউল আউয়াল, ১৪৪৩ হিজরি




গাইবান্ধায় জাপার ৫টি আসনে প্রার্থী চুড়ান্ত, মহাজোটে হলে লড়বে ৭০ আসনে

  • সংবাদ সময় : সোমবার, ১৬ জুলাই, ২০১৮
  • ২০৫ বার দেখা হয়েছে

ডেস্ক রিপোর্ট:

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে আওয়ামী লীগ বিএনপির পাশাপাশি সংসদের প্রধান বিরোধী দল জাতীয় পার্টিও  তাদের প্রার্থী তালিকা চূড়ান্ত করছে। দলগতভাবে জাতীয় পার্টির পাশাপাশি এরশাদের নেতৃত্বে গঠিত সম্মিলিত জাতীয় জোটের সম্ভাব্য প্রার্থীদেরকে গ্রীন সিগ্যনাল দিয়ে নিজ- নিজ নির্বাচনী এলাকায় গণসংযোগ বাড়ানোর জন্য নির্দেশ দিয়েছেন জোট প্রধান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ।
জাপার নির্ভরযোগ্য সুত্রে জানা গেছে, সারা দেশে ৩০০ সংসদীয় আসনে দল ও জোটের  প্রায় ৯০০ শতাধিক প্রার্থী প্রচারণায় থাকলেও তার মধ্যে থেকে অন্তত দুই শতাধিক আসনে প্রার্থী চূড়ান্ত করেছে জাতীয় পার্টি, এমন তথ্য জানিয়েছেন দলটির বেশ কয়েকজন নীতিনির্ধারক।
একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রাথমিক পর্যায়ে এককভাবে অংশ নেওয়ার সিদ্ধান্তের কারণে তিনশ আসনে প্রার্থী চূড়ান্ত করার পরিকল্পনা থাকলেও আওয়ামী লীগের সঙ্গে মহাজোট হলে এই তালিকা সত্তরের ঘরে নেমে আসতে পারে। সেই ক্ষেত্রে বর্তমান এমপিদের পাশাপাশি আরো পয়ত্রিশজনসহ মোট ৭০টি আসন আওয়ামী লীগের কাছে দাবি করবে জাতীয় পার্টি।
দলের নির্ভরযোগ্য সূত্রে জানা গেছে,  ঢাকা মহানগরসহ ঢাকা  বিভাগের মধ্যে  ঢাকা ১৭ আসনে নির্বাচন করবেন দলের চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। এছাড়া ঢাকা-১  আসনে বর্তমান সংসদ সদস্য এড. সালমা ইসলাম, ঢাকা-৪  ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা, ঢাকা-৬ কাজী ফিরোজ রশিদ আগামী নির্বাচনে জাতীয় পার্টির প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্ধিতা করবেন । আওয়ামী লীগের  সঙ্গে মহাজোট হলেও এই চারটি আসন ছাড়া আরো অন্তত তিনটি আসন চাইবেন এরশাদ।

তবে, গাইবান্ধার ৫টি আসনেই প্রার্থী দিবেন জাপা। তবে গাইবান্ধা ৪ও ৫ আসনে দু’জন করে প্রার্থী রেখে তালিকা চুড়ান্ত করেছেন। ৪আসনের পার্থী তালিকা নিয়ে তেমন জটিলতা না থাকলেও ৫ আসনের ভোট হিসাব নিকাশ নিয়ে ব্যাপক আলোচনা চলছে। কেননা ইতোপূর্বে সাঘাটা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এএইচএম গোলাম শহীদ রঞ্জর নাম শোনা গেলেও বর্তমানের আলোচনায় এসেছেন গাইবান্ধা জেলা পরিষদের চেয়াম্যান আতাউর রহমান সরকার আতা।  আতা’র নির্বাচনী প্রচারনা, জনসমর্থন, তৃণমূল জনগণের সাথে সু-সম্পর্ক, ব্যক্তিগত ভোট ব্যাংক, কেন্দ্রীয় পর্যায়ে যোগাযোগ সবমিলিয়ে অনেকটাই নির্বাচনী মােঠ সামনে এসেছেন। সেক্ষেত্রে বাদ পড়তে পারেন এ্যাডভোকেট রঞ্জু  এমনটাই জানিয়েছেন জাপার একজন শীর্ষস্থানীয় নেতা।

গাইবান্ধার ৫টি আসনে চুড়ান্ত প্রাথীরা হলেন- গাইবান্ধা-১ (সুন্দরগঞ্জ) ব্যারিস্টার শামীম হায়দার পাটোয়ারী,গাইবান্ধা- (সদর)২  আব্দুর রশিদ সরকার, গাইবান্ধা-৩ (পলাশবাড়ি-সাদুল্যাপুর) ব্যারিস্টার দিলারা খন্দকার শিল্পী, গাইবান্ধা-৪ (গোবিন্দগঞ্জ) কাজী মশিউর রহমান  ও আতাউর রহমান বেলাল, গাইবান্ধা-৫ (সাঘাটা-ফুলছড়ি) আতাউর রহমান সরকার আতা ও  এএইচএম গোলাম শহীদ রঞ্জ।

অপরদিকে জাতীয় পার্টিসহ সম্মিলিত জাতীয় জোটের পক্ষ থেকে ঢাকা-২ শামিম আহমেদ ও মো: শাহজাহান, ঢাকা-৩ ফারুক আহমেদ, ঢাকা-৫ মীর আবদুস সবুর আসুদ,  ঢাকা-৭ হাজি সাইফুদ্দিন আহম্মেদ মিলন, ঢাকা-৮  সাহিদুর রহমান টেপা ও জহিরুল আলম রুবেল, ঢাকা-৯ দেলোয়ার হোসেন খান ও ইসলামী ফ্রন্টের মো: আব্দুল হাকিম, ঢাকা-১০ মো. হেলাল উদ্দীন, ঢাকা-১১ এস এম ফয়সল চিশতী, ঢাকা-১২ দেওয়ান আলী, ঢাকা-১৩ শফিকুল ইসলাম সেন্টু, ঢাকা-১৪ মোস্তাকুর রহমান মোস্তাক, ঢাকা-১৫ মো. শামসুল হক, ঢাকা-১৬ সুলতান আহমেদ সেলিম ও আমান হোসেন আমানত, ঢাকা-১৮ মাসুদ  পারভেজ সোহেল রানা, মো. জাকির হোসেন মৃধা, ঢাকা-১৯ মো. বাহাদুর ইসলাম ইমতিয়াজ ও আবুল কালাম আজাদ, ঢাকা-২০ খান মুহম্মদ ইসরাফিল খোকনের নাম  প্রার্থী হিসেবে তালিকায় রয়েছে।
এদিকে বৃহত্তর ঢাকার জেলার মধ্যে গাজীপুর-১  আসনে খন্দকার আবদুস ছালাম, গাজীপুর-২ এন এন নেওয়াজ উদ্দিন ও জয়নাল আবেদীন, গাজীপুর-৩ আজহারুল ইসলাম সরকার ও মোতাহার হোসেন মানিক, গাজীপুর-৪ আজম খান ও মো. আরিফুর রহমান খান, এবং গাজীপুর-৫ জয়নাল আবেদীন ও  মোশাররফ হোসেন।
টাঙ্গাইল-১ মো. মঞ্জু, টাঙ্গাইল-২ মো. শামসুল হক তালুকদার, টাঙ্গাইল-৩ এড. সুয়েত আলী, টাঙ্গাইল-৪ মোস্তাক আহম্মেদ, টাঙ্গাইল-৫ আবুল কাশেম ও মোজাম্মেল হক, টাঙ্গাইল-৬ এমদাদ হোসেন, টাঙ্গাইল-৭ মো. জহিরুল ইসলাম জহির ও নুরুল ইসলাম নুরু এবং টাঙ্গাইল-৮ কাজী আশরাফ সিদ্দিকী।
মানিকগঞ্জ-১ সুলতান মাহমুদ ও আলী কসর, মানিকগঞ্জ-২ সৈয়দ আব্দুল মান্নান ও মিজানুর রহমান মিরু এবং মানিকগঞ্জ-৩ ঢাকা মহানগর দক্ষিণ জাপার সাধারণ সম্পাদক জহিরুল আলম রুবেল। রাজবাড়ী-১ এড. খন্দকার হাবিবুর রহমান বাচ্চু এবং রাজবাড়ী-২ মো. নজরুল ইসলাম, মো. রফিকুল ইসলাম ও শরীফ মনোয়ার-ই-খোদা মন্টি চৌধুরী।
ফরিদপুর-১ আক্তারুজ্জামান খান ও মো. কামরুজ্জামান, ফরিদপুর ২ মিয়া আলমগীর ও গাজী ফরিদুর রহমান শিপন, ফরিদপুর-৩ এস এম ইয়াহিয়া ও হাসিনা এমরান চৌধুরী এবং ফরিদপুর-৪ হাজি আনোয়ার হোসেন ও আবুল হোসেন মাজদার।
গোপালগঞ্জ-১ আবদুল মান্নান শেখ মুন্নু, গোপালগঞ্জ-২ শেখ আলমগীর হোসেন ও কাজী শাহীন এবং গোপালগঞ্জ-৩ রঞ্জণ।
মাদারীপুর-১ জহিরুল ইসলাম ঝন্টু, মাদারীপুর-২ জাকারীয়া অপু ও এড. সিরাজুল ইসলাম স্বপন এবং মাদারীপুর-৩ এম এ খালেক।
শরীয়তপুর-১ এড. মাসুদুর রহমান মাসুদ, শরীয়তপুর-২ শারমীন পারভীন লিজা ও সুলতান সরদার এবং শরীয়তপুর-৩ ম ম ওয়াসীম ও এম এ হান্নান।
নারায়ণগঞ্জ-১ আনোয়ার হোসেন ও জয়নাল আবেদিন, নারায়ণগঞ্জ-২ আলমগীর সিকদার লোটন, নারায়ণগঞ্জ-৩ বর্তমান সংসদ সদস্য লিয়াকত হোসেন খোকা, নারায়ণগঞ্জ-৪ সালাউদ্দিন খোকা মোল্লা এবং নারায়ণগঞ্জ-৫ বর্তমান সংসদ সদস্য সেলিম ওসমান ও আলহাজ জয়নাল আবেদীন।
নরসিংদী-১ শফিকুল ইসলাম শফিক, নরসিংদী-২ আজম খান ও আবু সাঈদ স্বপন, নরসিংদী-৩ এড. রেজাউল করিম বাসেদ ও আলমগীর কবির, নরসিংদী-৪ মো. নেওয়াজ আলী ভূইয়া এবং নরসিংদী-৫ ইঞ্জিনিয়ার ছাত্তার। মুন্সীগঞ্জ-১ এড. সিরাজুল ইসলাম, মুন্সীগঞ্জ-২ নোমান মিয়া ও কুতুব উদ্দিন আহম্মেদ এবং মুন্সীগঞ্জ-৩ আলহাজ আব্দুল বাতেন। কিশোরগঞ্জ-১ ডা. এস এম মোস্তাক খান পাঠান, আবদুল গণি, এড. আশরাফ উদ্দিন রেনু ও মোস্তাইন বিল্লাহ, কিশোরগঞ্জ-২ সৈয়দ সাদরুল্লাহ মাজু, আবু সাঈদ মো. খুররম ও এড জাহাঙ্গীর আলম সৈকত, কিশোরগঞ্জ-৩ বর্তমান সংসদ সদস্য মুজিবুল হক চুন্নু, কিশোরগঞ্জ-৪ শেখ মো. আবু ওয়াহাব ও কাজী আফতাব এবং কিশোরগঞ্জ-৫ মো. হোসেন উদ্দিন হিরা,  কিশোরগঞ্জ-৬ আলহাজ আবু বক্কর সিদ্দিক ও এন  কে সোহেল।
জামালপুর-১ আব্দুস সাত্তার, জামালপুর-২ মাহবুব আলম, জামালপুর- ৪ মোহা:মামুনুর রশিদ ও মোখলেসুর রহমান বস্তু।
চট্টগ্রাম বিভাগের মধ্যে  চট্টগ্রাম-২ আসনে জোটের প্রার্থী হিসেবে লড়বেন ইসলামী ফ্রন্টের চেয়ারম্যান আল্লামা এম এ মান্নান,  চট্টগ্রাম-৪  দিদারুল কবির দিদার, চট্টগ্রাম-৫ ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, চট্টগ্রাম-৮ কাজী মুজিবুর রহমান, চট্টগ্রাম-৯ জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু,  চট্টগ্রাম-১২ জাতীয় পার্টির নুরুচ্ছাফা সরকার ও ইসলামী ফ্রন্টের  মহাসচিব এম এ মতিন, চট্টগ্রাম-১৩ জাপার  আব্দুর রব চৌধুরী টিপু, হারুনুর রশিদ ও ইসলামী ফ্রন্টের এম এ মতিন চট্টগ্রাম-১৪ আব্দুল গফুর চৌধুরী ও ইসলামী ফ্রন্টের আব্দুস সামাদ, চট্টগ্রাম-১৫ ইউসুফ চৌধুরী, মো. সালেম ও  মো.ইউসুফ, চট্টগ্রাম-১৬ মাহমুদুল ইসলাম চৌধুরী,  কক্সবাজার-১ আসনে মোহাম্মদ ইলিয়াছ , কক্সবাজার-২ মো: মুহিবউল্লাহ ও পার্বত্য খাগড়াছড়ি আসনে চট্টগ্রাম মহানগর জাতীয় পার্টির সভাপতি সোলায়মান আলম শেঠ।
চাঁদপুর-১ ডা: শহিদুল ইসলাম,  চাঁদপুর -২ ইমরান হোসেন মিয়া, চাঁদপুর-৩ এডভোকেট মহসিন খান, চাঁদপুর-৪ মনিরুল ইসলাম মিলন, চাঁদপুর-৫ কামরুজ্জামান কাজল ও খোরশেদ আলম খুশু ,লক্ষীপুর- ১  বেলাল হোসেন, লক্ষীপুর -২  মোহাম্মদ নোমান  লক্ষীপুর-৩ এম আর মাসুদ, লক্ষীপুর-৪ মো.সিহাবউদ্দীন, কুমিল্লা-১  মাখন সরকার,  সৈয়দ ইফতেখার আহসান ও সুলতান জিসান উদ্দীন জিপু, কুমিল্লা-২ মোহাম্মদ আমির হোসেন, কুমিল্লা -৩ নাজমা আক্তার, কুমিল্লা-৪ ইকবাল হোসেন রাজু, কুমিল্লা-৫ তাজুল ইসলাম, কুমিল্লা-৭ লুৎফর রেজা খোকন, কুমিল্লা- ৮ নুরুল ইসলাম মিলন,  কুমিল্লা-৯ এটিএম আলমগীর ও ড. গোলাম মোস্তফা, কুমিল্লা-১১  এইচ এন শফিকুর রহমান,
ফেনী -১ নাজমা আক্তার,ফেনী-২ ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার নজরুল ফেনী-৩ রিন্টু আনোয়ার।
ব্রাক্ষনবাড়িয়া-১ রেদোয়ান আহমেদ, ব্রাক্ষনবাড়িয়া-২ এডভোকেট জিয়াউল হক মৃধা, ব্রাক্ষনবাড়িয়া-৩ এডভোকেট রেজাউল ইসলাম ভুইয়া, ব্রাক্ষণবাড়িয়া-৪ তারেক আদেল, ব্রাক্ষণবাড়িয়া-৫ কাজী মামুনুর রশিদ, ব্রাক্ষণবাড়িয়া-৬ এডভোকেট আমজাদ হোসেন।
বরিশাল বিভাগের মধ্যে বরিশাল -১ আসনে এস এম  রহমান পারভেজ, বরিশাল-২  নাসির উদ্দিন নাসিম, বরিশাল-৩ আসনে গোলাম কিবরিয়া টিপু, বরিশাল-৪ নাসির উদ্দিন সাথী, বরিশাল-৫ কে এম মুর্তজা আবেদীন,  বরিশাল-৬ আসনের নাসরিন জাহান রত্না,  পটুয়াখালী -১  আসনে জাপার মহাসচিব এবিএম রুহুল আমিন  হাওলাদার, বরগুনা-১ বিএনন জোটের এডভোকেট জাহাঙ্গির হোসেন ও শাহজাহান মনসুর, বরগুনা-২ খলিলুর রহমান, ভোলা-১ নজিব আহমেদ, ভোলা-৩ মিজানুর রহমান, ভোলা-৪ নুরুন্নবী শাওন
ময়মনসিংহ ভাগের মধ্যে, ময়মনসিংহ -১ আসনেএডভোকেট সোহরাব হোসেন, ময়মনসিংহ -২ মো: মন্ডল, ময়মনসিংহ-৩ এম এ জামাল, ময়মনসিংহ-৪ বেগম রওশন এরশাদ, ময়মনসিংহ-৫ সালাহউদ্দিন মুক্তি, ময়মনসিংহ-৬ ডা:  কে আর ইসলাম, ময়মনসিংহ-৭ বেগম রওশন এরশাদ, ময়মনসিংহ-৮ ফখরুল  ঈমান, ময়মনসিংহ -৯  মো: তালহা,ময়মনসিংহ-১০  মজিবুর রহমান, ময়মনসিংহ-১১ হাফিজ মাষ্টার ও খাইয়ুম। জামালপুর-৪ আসনে মামুনুর রশিদ,
রাজশাহী বিভাগের মধ্যে   রাজশাহী-১ শফিক বিশ্বাস, রাজশাহী-২ সাহাবুদ্দিন বাচ্চু, রাজশাহী-৪ আবু তালেব, রাজশাহী-৫ মাসুদুজ্জামান মাসুদ, রাজশাহী-৬ এডভোকেট ইকবাল হোসেন, বগুড়া-১ জি এম বাবু মন্ডল, বগুড়া-২ শরিফুল ইসলাম জিন্নাহ,  বগুড়া-৩ মো: নুরুল ইসলাম তালুকদার,  বগুড়া-৪ হাজী বাচ্চু, বগুড়া-৫ শাহজাহান তালুকদার, বগুড়া- ৬ মো: নুরুল ইসলাম ওমর,  বগুড়া-৭  মুহম্মদ আলতাফ আলী। জয়পুরহাট-১ আসম মুক্তদির তিতাস,  জয়পুরহাট-২ আবুল কাশেম রিপন,  চাপাইনবাবগঞ্জ-১ আলাউদ্দিন টিপু, চাপাইনবাবগঞ্জ-২ আরিফ আলী বাবু, চাপাইনবাবগঞ্জ-৩ এডভোকেট নজরুল ইসলাম সোনা, নাটোর-১ আবু তালহা ও সোহেল রানা, নাটোর-২ মুজিবুর রহমান সেন্টু, নাটোর-৩ ইঞ্জিনিয়ার আনিসুল হক, নাটোর-৪ আবুল কাশেম সরকার।
খুলনা বিভাগের মধ্যে খুলনা-১ সুনীল শুভ রায়, খুলনা-৩ বিএনএ  জোটের শেখ মোস্তাফিজুর রহমান,  বাগেরহাট-৩ সেকেন্দার আলী মনি,  কুষ্টিয়া-১ আসনে শাহরিয়া জামিল জুয়েল, কুষ্টিয়া-২ ডা:সুজা উদ্দিন, কুষ্টিয়া-৩ নাফিজ আহমেদ খাণ টিটু, কুষ্টিয়া-৪ সুমন আশরাফ, নড়াইল-১ মিল্টন মোল্লা, নড়াইল-২ এডভোকেট ফায়েকুজ্জামান ফিরোজ, মেহেরপুর-১ আব্দুল  হামিদ,
সিলেট বিভাগের মধ্যে সিলেট -১ আসনে হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ, সিলেট-২ ইয়াহইয়া চৌধুরী, সিলট -৩ এডভোকেট  কাইয়ুম ও ওসমান আলী, সিলেট-৪ তাজ রহমান, সিলেট-৫ সেলিম উদ্দিন ও সাব্বির আহমেদ, সিলেট -৬ তাজ রহমান ও সেলিম উদ্দিন,  হবিগঞ্জ-১  মনিম চৌধুরী বাবু, হবিগঞ্জ-২ শংকর পাল,  হবিগঞ্জ-৩ আতিকুর রহমান আতিক, সুনামগঞ্জ-৪ পীর ফজলুর রহমান, সুনামগঞ্জ-৫জাহাঙ্গির আলম ও কনা মিয়া।
রংপুর বিভাগের মধ্যে পঞ্চগড়-১  আবু সালেক , ঠাকুরগাঁও-১, রেজাউর রাজি স্বপন চৌধুরী। ঠাকুরগাঁও-২ নুরুন নাহার বেগম, ঠাকুরগাঁও-৩  হাফিজ উদ্দীন, দিনাজপুর-১ মোঃ শাহিনুর ইসলাম, দিনাজপুর-২ ড.জীবন চৌধুরী , দিনাজপুর-৩  আহমেদ শফি রুবেল , দিনাজপুর-৪ আলহাজ্ব সেকেন্দার আলী , দিনাজপুর-৫ এ্যাড. নূরুল ইসলাম ,
দিনাজপুর-৬আলহাজ্ব মোঃ দেলওয়ার হোসেন,নীলফামারী-১ জাফর ইকবাল সিদ্দিকী নীলফামারী -৩ কাজী ফারুক কাদের, সাজ্জাদ পারভেজ ও মেজর (অব.) রানা মোহাম্মদ সোহেল,  নীলফামারী-৪,মোঃ শওকত চৌধুরী  ও আদেলুর রহমান আদেল, লালমনিরহাট-১ মেজর (অব.) খালেদ আখতার, লালমনিরহাট-২ রোকন উদ্দিন বাবুল লালমনিরহাট-৩  গোলাম মোহাম্মদ কাদের, রংপুর-১ মোঃ মসিউর রহমান রাঙ্গা, রংপুর-২ আনিসুল ইসলাম মন্ডল ও অধ্যক্ষ আসাদুজ্জামান চৌধুরী সাবলু, রংপুর-৩ হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ,  রংপুর-৪, সিরাজুল ইসলাম ভরসা ও মোস্তফা সেলিম বেঙ্গল,  রংপুর -৫ ফখরুজ্জামান জাহাঙ্গির, রংপুর-৬ নূরে আলম যাদু। কুড়িগ্রাম-১ এ.কে.এম. মোস্তাফিজ্জুর রহমান, কুড়িগ্রাম-২ তাজুল ইসলাম চৌধুরী,  কুড়িগ্রাম-৩ আক্কাস আলী ও আবু তাহের খায়রুল হক, কুড়িগ্রাম-৪ অধ্যক্ষ মোহাম্মদ ইউনুছ আলী ও  সাবেক সচিব আশরাফ উদ  দৌলাকে জাতীয় পার্টি ও সম্মিলিত জাতীয় জোটের প্রার্থী হিসেবে চুড়ান্ত করেছে  হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ।




সংবাদটি শেয়ার করুন

এই ধরনের আরো সংবাদ