1. aftabguk@gmail.com : aftab :
  2. ashik@ajkerjanagan.net : Ashikur Rahman : Ashikur Rahman
  3. chairman@rbsoftbd.com : belal :
  4. ceo@solarzonebd.com : Belal Hossain : Belal Hossain
×
     

এখন সময় রাত ৩:৪৬ আজ রবিবার, ২রা জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৬ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ২রা শাওয়াল, ১৪৪২ হিজরি




ক্যা বাহে ব্যাজার হলেন?

  • সংবাদ সময় : রবিবার, ৭ মে, ২০১৭
  • ৪১১ বার দেখা হয়েছে

সৈয়দ নুরুল আলম জাহাঙ্গীর:
আজকালকার চেংড়াগুলা মিয়া মুরুব্বির ধার ধারেনা, মনে যা খুশী তাই করবা নাগচে।  এত কস্ট করি পাটা বেচিয়া, ধান বেচিয়া, বাড়ীত পোষা গরু ছাগল বেচিয়া টেকা পটায় বাপ মাও কিশোক বাহে? একদিন নেকা পড়া করিয়া মানুষের নাকান মানুষ হবে। বাহে চকিদার হওয়ার দরকার নাই মোর ব্যাটা পুলিশ হবে, ম্যাচিষ্টেট হবে, বড় অপিচার হবে, কতাগুলা কয়া হুহু করি কান্দে থেজের মুন্সি, কান্দন থামেনা । খেজরের কান্দন দেখিয়া নবেজ কানা কয়, বাহে খেজর তোক মুই মানায় কচ্চুনু বাহে টাউনোত ছলপল পড়াসনা। বাড়ীর বগলোত কলেজ এটি পড়া, তুই মোর কতা শুনলুনা, ব্যাটাক মেচোত থুইয়া পড়ানীর শক মিটচেতো? কুড়ানু কয়, বাহে মুই আর মজর গেচুনু টাউনোত, দুই জনে ঘুরা ফিরি করি যা দেকনো বাহে, হামার টৌদ্দ গুষ্টির আক্কেল হয়া গেচে। হুজ্জত আলী কয়, কিহচে এ্যানা খুলি কও বাহে, সগলে শুনুক। কুড়ানু কয়, বাহে কনেনা সেই কতাা? হুজ্জত আলী কয়, তুঁই কতো বাহে? কুড়ানু কয়, মুই আর মজর গেলো শনিবার মুট জাল কেনার জন্যে টাউনোত গেচিনো। খেজর কলো বাহে টাউনোত যাবার নাগচেন মোর ব্যাটার জন্যে চারটা চাউল, আর তরিতরকারী নিয়া যাও, সাতে বাড়ীত পালা দুইটা ডেকি চড়াইও দিলো। খেজরের ব্যাটা টাউনের দক্কিন মাতার একনা মেচোত থাকি পড়াশুনা করে। হুজ্জত আলী কয়, হুম, গাঁওয়ের ম্যালা চেংড়া চেংড়ী ম্যাচোত থাকি পড়ে, পাশ করি বাড়ীত আসে। চাকরী বাকরী হয়। বাপ মাওয়ের নাম হয়। এই কতা শুনিয়া ডুকরী কান্দি উটে খেজের, টংগের উপুর উপুর হয়া ওংড়া ম্যাংড়া শুরু করে। সগলে কয়, এলা ? ক্যা বাহে কি হচে? নবেজ কানা মুখখ্যান ব্যাকা করি কয়, বাহে এঁই ক্যামা বউমরার কান্দন কান্দে? এই কতা শুনিয়া খেজের চিকরী উটি কয়, তুই কি বুজবুহে ? ব্যাটা গুলাক বানাচিস হালুয়া আর গার্মেন্টের শ্রমিক।নবেজ কয়, হ বাহে তোর ব্যাটারা ডিসি, ম্যাজিস্টেট হবে? খেজের কয়, ডেটু হবে হে? কয়া কান্দে আর কান্দে। হুজ্জত আলী কয়, চুপকর হে, কুড়ানুক কয় তার পরে কি হচে কতো বাহে? বাহে হামরা মাল সামানা নিয়া যকন খেজরের ব্যাটার মেচোত পৌছিনো তখন বেলা ১২টা বাজে। যায়া দেকি মিয়া পাড়ার দুকনা চেংড়া ঘরের মদ্দে বসি গপ্পো করতিচে।
হামাক দেকিয়া চেংড়াগুলা সালাম দেয়,কয় ক্যা বাহে সালামের জন্যে আচ্চেন না? খেজেরের ব্যাটার নাম আব্দুস সালাম । কুড়ানু কয়,  সালামের বাপ এই খরচগুলা পটে দিচে। চাউলের বস্তা খরচখালা আর ডেকি মুরুগ দুটা সালাম যে চকিত শোতে তার তলে থুইয়া দেয় চেংড়াটা । কয় বাহে চাজী সালামের ফিরতে ঘন্টা দুই তিন নাগবে। প্রাইপেট পড়াবার গেচে। মজর কয়, কুড়ানু হাটেক এনা টাউন বেড়ে আসি । মজর কয় বাহে, আসলে হামার কতা কন। হামরা দেকা করিয়ায় যামো। কুড়ানু কয়, বহে মুই আর মজর ঘুরতে ঘুরতে পার্কের কানিত যায়া খাড়া হই। ভুলকি দিয়া দেকি পার্কের ডিগির সিড়িগুলার মদ্দে চেংড়া চেংড়ী সার ধরিয়া মোবাইল দিয়া ফটো তুলবা নাগচে । কেউ ডিগিটার কানির ঘরগুলার এলিং ধরি, কেউ হরিন, ঘোড়ার উপরুত চরিয়া, বসিয়া, হেলিয়া দুলিয়া, চোক ম্যালেয়া, মুঞ্জিয়া, কতো ধারনের ফটো তুলতিচে। মজর কয়, দেকচিস বাহে কুড়ানু দেকচিস? একনা চেংড়া, গোল ঘরের এলিং ধরিয়া কাল¬াটা তলে ডিগির পানির সাতে ঠ্যাকেয়া খটাস খটাস করি ছবি তোল্ ে। মজর হা করি খাকে । চেংড়াটার সাতে একনা ডেংড়া চেংড়ি, সুটপ্যান পেন্দা, চেয়ড়িটা কয়, বাহবা, তোমার সেলপিটা খুব সুন্দর হচে।  মজর মোক পুচ করে বাহে কুড়ানু চেলপি কি বাহে? চেংড়িটা যে চেংড়াটাক কলো । মুই কনু হাটতো যাই। ডিগির পশ্চিম দিকের গেট দিয়া বাড়েবার ধরি মজর ফিসফিস করি কয়, দেকচিস বাহে? সালাম কি করে? কেটা? মজর কয়, দেক,দেক। ঘাড় ঘুরিয়া দেকম একনা চেংড়িক ডিগির সিড়িত দার করেয়া সালাম ফচাফচ মোবাইল দিয়া ছবি তুলতিচে। মুঁই কনু, মজর হাট হামরা যাই, হামাক দেকলে চেংড়াটা লজ্জা পাবে। মজর কয়, দুর হে, নজ্জা সরমের মাতা কামেয়া ছবি তুলতিচে? তোর যতো কতা। মুই কনু হাট হাট। জোর করিয়া মজরোক ধেক্কে বাই করিয়া কনু, হাটেক মেচোত যাই। মজর কয়,এই শালা এগলা অংতামশা ছাড়ি এলায় যাবে? শালা বলে প্রাইফেট পড়ায়? এগলা প্রাইফেট পড়ানি? মজর কয় বাহে সালামের বাপ এগলা জানলে অক পড়াবে বাহে? এথন কি করি? মজর কয় হাটেক বাহে চারটা খায়া মেচোত যায়া শুতি থাকি। মুই কনু, বাহে মজর চা, ম্যালা দিন হাতে সিনেমা হলোত বই দেখিনা বাহে , হাটো দোন জনে বই দেখিয়া মেচত যায়া দেখা করিয়া বাড়ীত যামো এলা । মজর কয় ঠিক কচিস বাহে  হাটেক যাই। তাজ হলোত যায়া দেকি সউগ টিকিট শেষ হয়া গেছে। একনা মানুষ আসিয়া কয়, ক্যা বাহে? দুটা টিকিট আচে নিবেন? মজর কয়,দাম কতো বাহে? মানুষটা কয়, বাহে তোমরা কিনবার পাবেন?, মজর এনা মুছাহুট্টু, কয় বাহে? এংক্যা দেকিস দেকি হিসাব করিসনা? হামরা কি মফিজ ? মানুষটা কয়, দেও দুইশ চলি¬শ টেকা দেও। মজর কয়, এতটেকা? মুই কনু, কি করবু করতো বাহে। মজর কোচর মোচর করে, প্যাচ থাকি টেকা বাই করে, মানুষটাক দিয়া টিকিট দুটা নেয়। দোনোজনে সিড়ি দিয়া দোতলাত উটি। গেটোত ঢুকবার ধরি পাছের দিকে ফিরিয়া মজর কয়,দেকচিস বাহে? ইশারা করি সামনে দেকপার কয়। মুই সাপ দেকার নাকান চমকি উটনু বাহে। খেজেরের বেটা সালাম আর সেই চেংড়িটা কানির দিকে খোপটার মদ্দে ঢুকি গেল । মজর কয়, বাহে হাট হামরা বারে যাই। মুই কনু, টিকিট যে কিনলু? মজর কয়, জেবনে ম্যালা টেকা নষ্ট কচ্চোম বাহে? মুচি ম্যতরেরও টেকা আচে। কনু, বাহে খেজেরের ব্যাটা সালামের সাতে দেকা করবুনা? মজর কয়, বাহে সিনেমা হলের খুপড়ির মদ্দে যে প্রাইফেট পড়ানের জন্যে ঢুকচে, সহজে কি বাড়াবে বাহে? মজর মোক টানি বাইকরি বাড়ীর ঘাটা ধরে। এই কতা শুনিয়া হুজ্জত আলী কয়, বাহে খেজের টংগত শুতিয়া কান্দলে হবা নয় তোর ব্যাটা কলেজোত পরবার যায়া প্রাইফেট পড়ায়, তার কোজখবর নিচুলু ? শুনিয়া খেজের খালি কান্দে আর কান্দে। ক্যা বাহে কেউকি ব্যাজার হলেন?  ( সংখ্যা-০৮)




সংবাদটি শেয়ার করুন

এই ধরনের আরো সংবাদ