1. aftabguk@gmail.com : aftab :
  2. ashik@ajkerjanagan.net : Ashikur Rahman : Ashikur Rahman
  3. chairman@rbsoftbd.com : belal :
  4. ceo@solarzonebd.com : Belal Hossain : Belal Hossain
×
     

এখন সময় রাত ১১:১৪ আজ বুধবার, ৪ঠা কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২০শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১৩ই রবিউল আউয়াল, ১৪৪৩ হিজরি




সাঘাটায় নিয়মনীতি উপেক্ষিত,অতিদরিদ্রের মানববন্ধন!

  • সংবাদ সময় : মঙ্গলবার, ২১ মার্চ, ২০১৭
  • ১৯০ বার দেখা হয়েছে

সাঘাটা (গাইবান্ধা) প্রতিনিধি:
গাইবান্ধার সাঘাটায় অতিদরিদ্রদের জন্য কর্মসংস্থান কর্মসূচিতে নিয়মনীতি উপেক্ষা করে শ্রমিক ছাঁটাইয়ের অভিযোগ পাওয়া গেছে। নব-নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিরা পুরাতন শ্রমিকদের নাম বাদ দিয়ে এলাকার সচ্ছল লোকদের নাম অন্তর্ভূক্ত করেছেন। এ নিয়ে ছাটাইকৃত শ্রমিকরা সাঘাটা উপজেলা পরিষদ চত্বরে গত রোববার বিকেলে মানব বন্ধন কর্মসূচী পালন করে। ইজিপিপি কর্মসূচির জারিকৃত বিধিতে বলা হয়, পূর্বের তালিকাভুক্ত উপকারভোগীদের নাম পরবর্তী বছরে কর্তন করা যাবে না। তবে উপকারভোগী মারা গেলে তার স্থলে ওই পরিবারের অসচ্ছল ব্যক্তিকে তালিকায় অন্তর্ভূক্ত করতে হবে। কিন্তু নিয়ম নীতির তোয়াক্কা না করে উপজেলার ঘুড়িদহ এবং পদুমশহর ইউপি চেয়ারম্যান ও মেম্বাররা নিজের ইচ্ছেমতো নাম কর্তন করে এলাকার সচ্ছল ব্যক্তিদের নতুন নামের তালিকায় সংযোজন করেছেন। নতুন নাম সংযোজনকারীদের নিকট থেকে দুই থেকে তিন হাজার টাকা পর্যন্ত অর্থ হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ উঠেছে। বিষয়টি নিয়ে শ্রমিকরা ডেপুটি স্পীকারকে মৌখিক ও উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নিকট লিখিত অভিযোগ দাখিল করেছেন। নতুন শ্রমিকদের দিয়ে কাজ করা ও পুরাতন শ্রমিকদের বিষয়ে কোন সিদ্ধান্ত গ্রহণ না করায় বাদ পড়া শ্রমিকেরা চরম বিপাকে পড়েছে। সবচেয়ে বেশি অভিযোগ পাওয়া গেছে, উপজেলার ঘুড়িদহ এবং পদুমশহর ইউনিয়নে। ঘুড়িদহ এবং পদুমশহর ইউনিয়নের প্রায় তিন শতাধিক শ্রমিকের নাম কর্তন করা হয়েছে। ছাটাইকৃত শ্রমিকরা জানান, ৪০দিনের কাজ পেয়ে সংসারের খরচ কিছুটা চালানো সম্ভব হয়েছিল। নব-নির্বাচিত ইউপি মেম্বাররা নাম বহাল রাখার জন্য দাবীকৃত টাকা না পেয়ে তাদের নামগুলো কর্তন করে নতুন নাম বসিয়ে দিয়েছে। কাজ করবার গিয়ে দেখা গেছে তাদের নাম নাই। স্থানীয়ভাবে অন্য কোন কাজ না থাকায় পরিবার পরিজন নিয়ে তারা খুবই কষ্ঠে আছেন। তারা তাদের নাম পুনর্বহালের দাবী জানান। সাঘাটা উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মিঠুন কুন্ডু জানান, উপজেলার সকল ইউনিয়নে সরকারী বিধি অনুযায়ী শ্রমিকের নাম কর্তন করার কথা বলা হয়েছে। যদি কেউ নিয়মবর্হিভূতভাবে পুরাতন শ্রমিকদের নাম কর্তন করে সেক্ষেত্রে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। কিন্তু এখন পর্যন্ত কোন কার্যকরী পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি। #




সংবাদটি শেয়ার করুন

এই ধরনের আরো সংবাদ