1. aftabguk@gmail.com : aftab :
  2. ashik@ajkerjanagan.net : Ashikur Rahman : Ashikur Rahman
  3. chairman@rbsoftbd.com : belal :
  4. ceo@solarzonebd.com : Belal Hossain : Belal Hossain
×
     

এখন সময় সকাল ৮:৫৪ আজ শুক্রবার, ১৩ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২৭শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ২৪শে শাওয়াল, ১৪৪৩ হিজরি




সাঘাটায় আ’লীগের দু’গ্রæপের সংঘর্ষে ৬ নেতাকর্মী আহত

  • সংবাদ সময় : শুক্রবার, ১৭ মার্চ, ২০১৭
  • ৭০৯৮ বার দেখা হয়েছে

স্টাফ রিপোর্ট:
গাইবান্ধার সাঘাটায় উপজেলার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মদিন ও জাতীয় শিশু দিবসের অনুষ্ঠাননে বঙ্গবন্ধুর মুরালে ফুল দেওয়াকে কেন্দ্র করে আ’লীগের দু’গ্রæপের মধ্যে ব্যাপক ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও  সংঘর্ষের  ঘটনা ঘটে। এসময়  উপজেলা আ’লীগ সভাপতি ও যুবলীগ সাধারন সম্পাদকসহ অন্তত ৬ নেতাকর্মী আহত হয়েছেন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে।
গতকাল শুক্রবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে সাঘাটা উপজেলা উপজেলা পরিষদ চত্ত¡রে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৮ তম জন্মদিন ও জাতীয় শিশু দিবসের অনুষ্ঠান আয়োজন করে  সাঘাটা উপজেলা প্রশাসন। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত হন জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পিকার এ্যাড. ফজলে রাব্বী মিয়া এমপি। স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থী, শিক্ষক ও  দলীয় নেতাকর্মীদের নিয়ে তিনি উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে কেক কেটে অনুষ্ঠান শুরু করেন।  এরপর তিনি  নেতাকর্মীদের নিয়ে বঙ্গবন্ধু মুরালে ফুল দিতে গেলে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সভাপতি মাহমুদ হাসান রিপনের পক্ষের নেতাকর্মীরাও ফুল দেওয়ার জন্য মিছিল নিয়ে সমবেত হন। এসময় উভয় গ্রæপের নেতাকর্মীর মধ্যে বাক-বিতন্ডা ও হাতাহাতি হয়। একপর্যায়ে উভয় গ্রæপের মধ্যে সংঘর্ষ বাঁধে। তারা রামদা ও লাঠি সোঠা নিয়ে স্ব-স্ব অবস্থান নেন।  পরে বোনারপাড়া রেল স্টেশন এলাকা ও বাজার এলাকায় দু’গ্রæপের মধ্যে দফায় দফায় ধাওয়া পাল্টা-ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এসময় সাঘাটা উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আবদুল ওয়ারেছ প্রধান, সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. ছামছুল আরেফিন টিটু, উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক নাসিরুল আলম স্বপন, ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি মুশফিকুর রহমান সুজন ও যুবলীগ নেতা  মোজাহার আলী আহত হন ।
সাঘাটা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোস্তাফিজুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে রাবার বুলেট নিক্ষেপ করা হয়েছে। বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। এছাড়া পরবর্তী পরিস্থিতি এড়াতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন ও টহল জোরদার করা হয়েছে। ইউএনও উজ্জ¦ল কুমার ঘোষ জানান, অনুষ্ঠান সুষ্ঠুভাবে হয়েছে। অনাকাংখিত ঘটনা অনুষ্ঠানে প্রভাব পড়েনি। তবে এ বিষয়ে ডেপুটি স্পিকার ফজলে রাব্বী, ছাত্রলীগের সভাপতি মাহামুদুল হাসান রিপনের সঙ্গে  যোগাযোগের চেষ্টা করেও বক্তব্য পাওয়া যায়নি। উপজেলা যুবলীগ সভাপতি হারুন অর রশিদ হিরু জানান, তাৎক্ষনিক সংঘর্ষ হলেও এখন শান্ত ।
এদিকে, এ ঘটনার বোনারপাড়া বাজার, স্টেশন এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করে। ঘটনার সময় সকল দোকান পাট ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ হয়ে যায়। বর্তমানে এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে উভয় গ্রæপের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে।




সংবাদটি শেয়ার করুন

এই ধরনের আরো সংবাদ